• ঢাকা
  • রবিবার, ১৪ জুলাই, ২০২৪, ২৯ আষাঢ় ১৪৩১

বিশ্বকাপ জিততে দক্ষিণ আফ্রিকার দরকার ১৭৭ রান


FavIcon
স্পোর্টস ডেস্ক:
প্রকাশিত: জুন ২৯, ২০২৪, ১১:২১ পিএম
বিশ্বকাপ জিততে দক্ষিণ আফ্রিকার দরকার ১৭৭ রান

দীর্ঘ এক মাসের লড়াইয়ের পর টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ ফাইনালের মঞ্চ প্রস্তুত। ফাইনালে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে মাঠে নামছে ভারত।  বার্বাডোজের ব্রিজটাউনের কেনসিংটন ওভালে শিরোপা নির্ধারনীর এই ম্যাচে টসে জিতে ব্যাট করার সিধান্ত নেন ভারতের অধিনায়ক রোহিত শর্মা। ব্যাট করতে নেমে প্রোটিয়া বোলারদের তোপে শুরুতেই ৩ উইকেট হারিয়ে চাপে পড়ে ভারত। তবে একপ্রান্ত আগলে রেখে চাপ সামাল দেন বিরাট কোহলি। তার অর্ধশতকে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৭ উইকেট হারিয়ে ১৭৬ রানের সংগ্রহ পায় ভারত। 
টসে জিতে ব্যাট করতে নেমে ভারতের হয়ে ইনিংস শুরু করেতে আসেন অধিনায়ক রোহিত শর্মা ও বিরাট কোহলি। এই দুই জনের ব্যাটে উড়ন্ত সূচনা পায় ভারত। প্রথম ওভারেই ১৫ রান যোগ করেন দুজন। তবে দ্বিতীয় ওভারে এসে জুটি ভাঙেন কেশভ মহারাজ। প্রথম দুই বলে রোহিত শর্মার হাতে বাউন্ডারি হজম করা কেশব মহারাজ চতুর্থ বলে সফলতা পান। তার বলে সুইপ করতে গিয়ে স্কয়ার লেগে হেনরিখ ক্লাসেনকে ক্যাচ তুলে নেন রোহিত।

গত দুই ম্যাচে টানা অর্ধশতকের পর রোহিত আজ ৫ বলে ৯ রান করে সাজঘরে ফিরে যান। নতুন ব্যাটার ঋষভ পান্থ পরের বলটি ডট দিতে সমর্থ হলেও ষষ্ঠ বলে পরাস্ত হন। সুইপ করতে গেলে পন্তের ব্যাটে টপ এজ হয়ে মাথার ওপর নিয়ে চলে যায় উইকেটকিপার কুইন্টন ডি ককের হাতে। ভিডিও অ্যাসিস্ট্যান্ট রেফারির সহায়তা নিয়ে আউট দেয়া হয় পান্থকে।   
প্যাভিলিয়নে যাবার আগে শূন্য রানে ফেরেন এই বাঁহাতি ব্যাটার ও উইকেটরক্ষক। এরপর বাইশগজে ব্যাট হাতে আসেন সূর্যকুমার যাদব।  বরাবরই দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ভালো খেলা এই মারকুটে ব্যাটার নিজেকে মেলে ধরতে ব্যার্থ হন আজ। উইকেটে থিতু হবার আগেই দলীত ৩৪ রানে প্যাভিলিয়নের পথ ধরেন তিনি। যাবার আগে ৩ রান করেন তিনি।
দ্রুত তিন উইকেট পড়ার পর প্রমোশন পেয়ে পাঁচে ব্যাটিং করতে নামলেন অক্ষর প্যাটেল। দলের স্বীকৃত এই বোলার বিরাট কোহলিকে নিয়ে দলকে স্বস্তি এনে দেন। তাদের ৭২ রানের জুটিতে দলের স্কোর একশো পার হয়। তবে এরপরই দলীয় ১০৬ রানে কুইন্টন ডি ককের চমৎকার থ্রোতে নন স্ট্রাইক প্রান্তে রানআউট হয়ে সাজঘরে ফেরেন তিনি। যাবার আগে ৩১ বলে ৪৭ রান করেন তিনি।

এরপর ব্যাট হাতে উইকেটে আসেন শিবম দুবি। তাকে সঙ্গে রানের চাকা সচল রাখেন কোহলি। ইনিংসের ১৭তম ওভারে নিজের অর্ধশতকও তুলে নেন বিরাট। এরপর প্রোটিয়া ব্যাটারদের ওপর চড়াও হন তিনি। তবে দলীয় ১৬৩ রানে আউট হলে ভাঙে এই জুটি। সাজঘরে যাবার আগে ৭৬ রান করেন তিনি। শেষ দিকে দুবির ২৭ রানের ক্যামিও তে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৭ উইকেট হারিয়ে ১৭৬ রানের সংগ্রহ পায় ভারত।


Side banner
Link copied!