• ঢাকা
  • রবিবার, ১৪ জুলাই, ২০২৪, ২৯ আষাঢ় ১৪৩১

কোপা আমেরিকা : মার্টিনেজ বিরত্বে কষ্টার্জিত জয় নিয়ে সেমিতে আর্জেন্টিনা


FavIcon
মো: আল হেলাল
প্রকাশিত: জুলাই ৫, ২০২৪, ০৬:১০ পিএম
কোপা আমেরিকা : মার্টিনেজ বিরত্বে কষ্টার্জিত জয় নিয়ে সেমিতে আর্জেন্টিনা

নির্দিষ্ট সময়ের খেলা শেষে, অতিরিক্ত সময়ের খেলা চলছিল, তখনো আর্জেন্টিনা ১-০ গোলে এগিয়ে।   সমর্থকরা জয়োল্লাসের প্রস্তুতি নিচ্ছেন, তখনই কিছু বুঝে ওঠার আগেই এলোমেলো হয়ে গেল সব। জন ইয়াবোয়াহর ক্রসে মাথা ছুঁইয়ে ইকুয়েডরকে সমতায় ফেরান কেভিন রদ্রিগেজ। ১-১ গোলের সমতায় শেষ হয় নির্ধারিত নব্বই মিনিটের খেলা। ম্যাচ গড়ায় সরাসরি পেনাল্টি শ্যুটআউটে।

তবে সেই পেনাল্টি শ্যুটআউটে ইকুয়েডরকে পেনাল্টিতে ৪-৩ গোলে হারিয়ে কোপা আমেরিকার সেমিফাইনাল নিশ্চিত করে মেসি বাহিনী।

এর আগে, ম্যাচের শুরুতেই বল নিজেদের দখলে রেখে খেলতে থাকে আর্জেন্টিনা। তাতে ৬৫ শতাংশ সময় বল ছিল মেসিদের পায়ে। তবে গোলপোস্ট লক্ষ্য করে বেশি শট নেওয়ার সুযোগ পায়নি স্কালোনির দল। বিপরীতে ৩৫ শতাংশ বল পায়ে রাখে ইকুয়েডর।

আর্জেন্টিনা প্রথম আক্রমণটা করে ম্যাচের ২৭তম মিনিটে। তবে লাহুয়েল মলিনার ক্রসে হেড দিয়েও জাল খুঁজে নিতে ব্যর্থ হন এনজো ফার্নান্দেজ। ৩৪তম মিনিটের মাথায় মেসির পাস থেকে শট নিয়েছিলেন এনজো। তবে প্রতিপক্ষের একজন খেলোয়াড়ের গায়ে লেগে সেটা লক্ষ্যভ্রষ্ট হয় ।
অবশেষে ৩৫তম মিনিটে এগিয়ে যায় আর্জেন্টিনা।

কর্নার থেকে বল উড়িয়ে দিয়েছিলেন মেসি। ডি-বক্সের ভেতরেই মাথা ছুইয়ে সেটার দিক বদলে দেন ম্যাক অ্যালিস্টার। আর, মাথার আলতো ছোঁয়ায় জাল খুঁজে নেন লিসান্দ্রো।

দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেই ম্যাচের দৃশ্যপট দখলে নেয় ইকুয়েডর। এসময়ে দৃশ্যত এগিয়ে ছিল ইকুয়েডর। আর্জেন্টিনা যেখানে পুরো ৪৫ মিনিটে একবারই কেবল গোলে শট নিয়েছে, সেখানে বারবার আলবিসেলেস্তেদের ডিবক্সে হানা দিয়েছিল এনার ভ্যালেন্সিয়া-ময়সেস কেইসেডোরা। ম্যাচের ৬২ মিনিটে সমতায় ফিরতে পারত তারা। কিন্তু শেষ পর্যন্ত এনার ভ্যালেন্সিয়ার পেনাল্টি ফিরে আসে বার থেকে।

৯২ মিনিটে ইকুয়েডরের কেভিন রড্রিগেজ গোল করে ইকুয়েডরকে সমতায় ফেরান। কোপায় কোনো অতিরিক্ত সময়ের নিয়ম না থাকায় ম্যাচ গড়ায় টাইব্রেকারে।

টাইব্রেকারে আর্জেন্টিনার হয়ে প্রথম পেনাল্টি মিস করেন মেসি। কিন্তু এমি মার্টিনেজ টানা দুটি পেনাল্টি রুখে দিয়ে আর্জেন্টিনাকে ম্যাচে ফেরান। শেষ পেনাল্টিতে নিকোলাস ওটামেন্ডি আর্জেন্টিনার হয়ে গোল করে দলকে সেমিফাইনালে তোলেন।
 


Side banner
Link copied!