• ঢাকা
  • রবিবার, ২৯ মে, ২০২২, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯

সিন্ডিকেটের স্বার্থরক্ষায় ভোজ্যতেলের দাম বাড়িয়েছে সরকার: ন্যাপ


FavIcon
নিজস্ব প্রতিবেদক:
প্রকাশিত: মে ৭, ২০২২, ০৯:১৯ পিএম
সিন্ডিকেটের স্বার্থরক্ষায় ভোজ্যতেলের দাম বাড়িয়েছে সরকার: ন্যাপ
ছবি: সংগৃহীত

ঈদের আগে ভোজ্যতেলের সংকট তৈরি করে যে সিন্ডিকেট জনগণের সঙ্গে প্রতারণা করেছে সরকার তাদের শাস্তি না দিয়ে তেলের দাম বাড়িয়ে পুরস্কৃত করেছে মন্তব্য করে বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টির (বাংলাদেশ ন্যাপ) চেয়ারম্যান জেবেল রহমান গানি ও মহাসচিব এম. গোলাম মোস্তফা ভুইয়া বলেছেন, জনগণ নয়, সিন্ডিকেটের স্বার্থরক্ষায় ভোজ্যতেলের দাম বাড়িয়েছে সরকার।
শনিবার (৭ মে) গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে এসব কথা বলেন পার্টির নেতৃদ্বয়।
নেতৃদ্বয় বলেন, ঈদের আগে থেকেই বাজারে ভোজ্যতেলের কৃত্রিম সংকট তৈরি করে সিন্ডিকেট ব্যবসায়ীরা। দোকানে কোনো তেল না পাওয়ার চিত্র দেখা যায়। ঈদের পর সংকট আরও তীব্র হতে থাকে। বাজারে এমন সংকটের মধ্যেই সরকার দেশের মানুষের কথা বিবেচনা না করে এক লাফে বোতলজাত সয়াবিন তেল ৩৮ টাকা, খোলা সয়াবিন তেল ৪৪ টাকা লিটার প্রতি বাড়ানোর ঘোষণা দেয়। এ ঘোষণার মাধ্যমে জনগণের বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছে সরকার। এতে জনজীবনে যে দুর্ভোগ নেমে আসবে তার দায় বাণিজ্য মন্ত্রণালয়, বাণিজ্যমন্ত্রী-সচিব এড়াতে পারবেন না।

সরকারের অব্যবস্থাপনা ও লুটেরা ব্যবসায়ী সিন্ডিকেটের কারণে দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতিতে জনগণের যখন নাভিশ্বাস তখন তেলের দাম বাড়ানোর মাধ্যমে সরকার নিজেই প্রমাণ করলো দেশের বাজার আজ মুনাফালোভী সিন্ডিকেটের হাতে বন্দি।

দ্রব্যমূল্য এখন মধ্যবিত্তের ক্রয় ক্ষমতার বাইরে চলে গেছে। ঈদের আগে সরকার অনেক নাটক করেছে। সরকার ব্যবসায়ী সিন্ডিকেটের ওপর দায় চাপানোর চেষ্টা করেছে। অথচ এ কথা দিবালোকের মত স্পষ্ট এসব সিন্ডিকেট সরকারি দলের নেতারাই তৈরি করেছেন।

তারা আরও বলেন, সরকার জনগণকে স্বস্তি দিতে যেখানে আমদানি ও উৎপাদন পর্যায়ে আমদানি শুল্ক প্রত্যাহার করলো, সেই সুবিধা তো জনগণ পেলই না, উল্টো আরও দাম বাড়িয়ে জনগণের পকেট কাটার সঙ্গে সঙ্গে বাজার থেকে হঠাৎ করে তেল উধাও করে দেওয়া হলো। যেখানে লুটেরাদের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়ার কথা, তা না করে সরকার তেলের দাম বাড়িয়ে জনগণের সঙ্গে প্রহসন করেছে। এটি জনগণের সঙ্গে চরম প্রতারণা ছাড়া অন্যকিছুই নয়।
 



Side banner