• ঢাকা
  • সোমবার, ০৮ আগস্ট, ২০২২, ২৪ শ্রাবণ ১৪২৯

বাগবাটীতে প্রেমে ব্যর্থ হয়ে স্কুল ছাত্রীর আত্যাহত্যা


FavIcon
জহুরুল ইসলাম , সিরাজগঞ্জ :
প্রকাশিত: জুন ৩০, ২০২২, ০১:৫৫ পিএম
বাগবাটীতে প্রেমে ব্যর্থ হয়ে স্কুল ছাত্রীর আত্যাহত্যা
ছবি: সংগৃহীত

সিরাজগঞ্জে বাগবাটী উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির ছাত্রী জয়নব খাতুন আখি (১৪) প্রেমে ব্যর্থ হয়ে আত্বহত্যার অভিযোগ উঠেছে। পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করেছেন।
এই ঘটনায় ছাত্রীর দাদার পরিবার একটি হত্যা বলে থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন।
জয়নব খাতুন ফুলকোচা গ্রামের মৃত জয়নাল আবেদীন বাটুলের কন্যা।
মঙ্গলবার(২৮ জুন) বিকেলে নানার বাড়িতে আখি আত্বহত্যা করে। এটা হত্যা না আত্বহত্যা এই নিয়ে এলাকায় নানা গুনজন শুরু হয়েছে।
মেয়ের দাদা আব্দুল কুদ্দুস কসাই জানান, আমার ছেলে  বাগবাটী গ্রামের আবুল কালামের মেয়ে মোছা. পাখি খাতুনের সাথে ১৭ বছর আগে বিয়ে হয়। পাখি দুই সন্তানের জননী হবার পর বাগবাটী এলাকার গার্মেন্টস শ্রমিকের সাথে পরকীয়া শুরু করে। বিষয়টি পাখির স্বামী বুঝতে পারলে ওই পথ থেকে সরে আসতে বলেন।   পরকীয়ায় মগ্ন প্রেমিকা পাখি স্বামীর  কথা না শুনে গভীর পরকীয়ায় মেতে উঠে।
স্ত্রীর পরকীয়া সহ্য করতে না পেরে তিন বছর আগে বাটুল আত্বহত্যা করে। স্বামীর আত্বহত্যার কয়েক মাস পরে পাখি পরকীয়া প্রেমিকের সাথে বিয়ে বসেন বলে অভিযোগ রয়েছে। বিয়ে বসার পর তার দুই সন্তানকে নানার বাড়িতে রেখে ঢাকায় গার্মেন্টসে
চাকুরীতে যান। তিনি আরো জানান আমার এক নাতি এক নাতনীকে ভোরণ পোষনের জন্য এক লাখ টাকায় খায়খালাশি জমি রেখে দেয়। ওই জমির ফসল দিয়ে দুই নাতির খাওয়া ও পড়াশোনা চলে। 
স্থানীয়রা জানান, স্কুল ছাত্রী আখির সাথে প্রতিবেশী সবুজের প্রেমের সম্পর্ক ছিল। সবুজ আখিকে ফাকি দিয়ে অন্যত্র বিয়ে করে। এই ঘটনায় সবুজ ও আখির মধ্যে দ্বিধাদ্বন্দ্ব চলছিল।
আখির মা পাখি জানান, আখি মরার আগে সবুজ তার বউকে ডিভোর্স দিবে বলে মুঠোফোনে জানান। বিনিময়ে সবুজ দুই লাখ টাকা দাবী করে।
এ বিষয়ে ফুলকোচা গ্রামের ইউপি সদস্য আবু রায়হান বলেন -  প্রেমে ব্যর্থ হয়ে আখি আত্বহত্যা করেছে। বিষয়টি সঠিক ভাবে তদন্ত করে স্থানীয় প্রশাসনের নিকট ন্যায় বিচারের দাবী জানান।
এ ব্যপারে বাগবাটী ইউপি চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর আলম বলেন - আত্বহত্যার বিষয়টি কেউ জানায়নি।
ময়না তদন্তের রিপোর্ট পেলে ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে সদর থানার ভারপ্রপ্ত কর্মকর্তা নজরুল ইসলাম জানান।



Side banner