• ঢাকা
  • রবিবার, ২৯ মে, ২০২২, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯

স্পেনে বাংলাদেশ দূতাবাসে উৎসবমুখর পরিবেশে বিজয় দিবস উদযাপন


FavIcon
অনলাইন ডেস্ক:
প্রকাশিত: ডিসেম্বর ১৮, ২০২১, ১০:৩১ এএম
স্পেনে বাংলাদেশ দূতাবাসে উৎসবমুখর পরিবেশে বিজয় দিবস উদযাপন
ছবি: সংগৃহীত

যথাযোগ্য মর্যাদা ও উৎসবমুখর পরিবেশে স্পেনের রাজধানী মাদ্রিদে অবস্থিত বাংলাদেশ দূতাবাসে মহান বিজয় দিবস উদযাপিত হয়েছে। বাংলাদেশের মহান স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী এবং জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকীর শুভক্ষণে এবারের বিজয় দিবসের অনুষ্ঠান দুটি পর্বে ভাগ করে উদযাপন করা হয়।

বৃহস্পতিবার (১৬ ডিসেম্বর) সকাল সাড়ে ৯টায় দূতাবাস প্রাঙ্গণে জাতীয় পতাকা উত্তোলনের মধ্যদিয়ে অনুষ্ঠানের প্রথম পর্ব শুরু হয়। দূতাবাসের সব সদস্যের উপস্থিতিতে পতাকা উত্তোলন করেন রাষ্ট্রদূত মোহাম্মদ সারওয়ার মাহমুদ এনডিসি। এরপর মহান মুক্তিযুদ্ধের শহীদদের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়।
পবিত্র কোরআন থেকে তিলাওয়াতের মধ্যদিয়ে আয়োজনের দ্বিতীয় পর্ব শুরু হয় সন্ধ্যা ৬টায়। এ বছর মহান বিজয় দিবস উদযাপনের সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য দিক ছিল স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী ও মুজিববর্ষের শপথ পাঠ। নতুন প্রজন্মসহ সর্বস্তরের জনগণকে জাতির পিতার আদর্শে উন্নত, সমৃদ্ধ ও অসাম্প্রদায়িক চেতনার সোনার বাংলা গড়া এবং মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উজ্জীবিত করার লক্ষ্যে দূতাবাসে উপস্থিত সকলকে শপথবাক্য পাঠ করানো হয়।এছাড়া দিবসটি উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর বাণী পাঠ করেন যথাক্রমে দূতালয় প্রধান এটিএম আব্দুর রউফ মন্ডল, কমার্শিয়াল কউন্সিলর রেদোয়ান আহমেদ, মুতাসিমুল ইসলাম (সচিব, শ্রম), কউন্সিলর দীন মোহাম্মদ ইনামুল হক।এরপর আলোচনা সভায় বক্তব্য প্রদান করেন রাষ্ট্রদূত মোহাম্মদ সরওয়ার মাহমুদ এনডিসি। শুরুতেই তিনি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, বঙ্গমাতাসহ ১৫ আগস্ট ঘাতকের হাতে শহীদ জাতির পিতার পরিবারের সব সদস্য, জাতীয় চার নেতা এবং মহান মুক্তিযুদ্ধের ৩০ লাখ শহীদ ও দুই লাখ সম্ভ্রমহারা মা-বোনসহ বীর মুক্তিযোদ্ধাদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করেন। তিনি স্পেনে প্রবাসী বাংলাদেশিদের মহান বিজয় দিবসের শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানান।রাষ্ট্রদূত বলেন, বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়ার লক্ষ্যে তার সুযোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বলিষ্ঠ নেতৃত্বে সরকার রুপকল্প ২০২১, রুপকল্প ২০৪১ ও ডেল্টা পরিকল্পনা ২১০০ বাস্তবায়ন করে যাচ্ছে। এ বছরই স্বল্পোন্নত দেশের ক্যাটাগরি থেকে উন্নয়নশীল দেশে উন্নীত হওয়ার জন্য আমরা জাতিসংঘের চূড়ান্ত অনুমোদন লাভ করেছি, যা জাতিসংঘসহ আন্তর্জাতিক অঙ্গনে আমাদের মর্যাদা ও সক্ষমতার স্বাক্ষর। ২০৩০ টেকসই উন্নয়ন এজেন্ডা, জলবায়ু পরিবর্তন, অভিবাসন, বিশ্বশান্তি রক্ষা, শান্তি-বিনির্মাণ, দারিদ্র্য দূরীকরণ বিষয়ক আলোচনা ও নারীর ক্ষমতায়নসহ অসংখ্য বহুপাক্ষিক প্ল্যাটফর্মে বাংলাদেশ নেতৃত্বশীল ভূমিকা রেখে চলেছে।তিনি আরও বলেন, আমরা আজ বিশ্বের ৪১তম অর্থনীতির দেশ। আশা করা যায়, ২০৩৫ সাল নাগাদ বাংলাদেশ বিশ্বের ২৫তম বৃহৎ অর্থনীতির দেশ হিসেবে আত্মপ্রকাশ করবে। কোভিড ব্যবস্থাপনা ও অব্যাহত অর্থনৈতিক উন্নয়নে বিশ্বের কাছে আজ বাংলাদেশ রোল মডেল। তিনি মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উদ্বুদ্ধ হয়ে সবাইকে দেশ গড়ার কাজে আত্মনিয়োগের আহ্বান জানান।
আলোচনা সভায় আরও বক্তব্য রাখেন স্পেন আওয়ামী লীগের সভাপতি এস আর আইএস রবিন, সাধারণ সম্পাদক রিজভী আলম, সহ-সভাপতি একরামুজ্জামান কিরণ, বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েসন ইন স্পেনের সাধারণ সম্পদক কামরুজ্জামান সুন্দর, স্পেন বাংলা প্রেসক্লাবের সভাপতি সাহাদুল সুহেদ, স্পেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক জাহিদুর রহমান দিদার, আজম কাল, সাংগঠনিক সম্পাদক বদরুল কামালী, আওয়ামী লীগ নেতা অ্যাডভোকেট তারেক হোসাইন বেলাল আহমদ, ছাত্রলীগ নেতা হানিফ মিয়াজী।

সভা শেষে স্বাধীনতার মহান স্থপতি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানসহ মহান মুক্তিযুদ্ধের সকল শহীদের রুহের মাগফিরাত এবং দেশের সুখ, সমৃদ্ধি ও উন্নতি কামনায় মোনাজাত করা হয়।

পরে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। এতে কবিতা আবৃত্তি, দেশের গান ও জাতীয় সংগীত পরিবেশন করা হয়। সবশেষে রাতের খাবারে অংশগ্রহণ করেন সবাই।



Side banner