• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ২৯ জুলাই, ২০২১, ১৪ শ্রাবণ ১৪২৮

সাকিবের অশোভন আচরণ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে মিশ্র প্রতিক্রিয়া


FavIcon
স্পোর্টস ডেস্ক:
প্রকাশিত: জুন ১২, ২০২১, ০২:১৪ পিএম
সাকিবের অশোভন আচরণ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে মিশ্র প্রতিক্রিয়া

বঙ্গবন্ধু ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে (ডিপিএল) আবাহনী-মোহামেডানের ম্যাচের সময় সাকিব আল হাসান স্ট্যাম্পে লাথি ও আছাড় দিয়ে, যে অশোভন আচরণ করেছেন তা নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে চলছে মিশ্র প্রতিক্রিয়া। বিষয়টি উপভোগ করছেন তার স্ত্রী শিশির।আবাহনী-মোহামেডানের ম্যাচ মানেই উত্তেজনা। সেই তাপের মাত্রা যদি ছাড়িয়ে যায় স্ট্যাম্পে লাথি মারা থেকে শুরু করে তুলে আছাড় দেয়ার ঘটনা ঘটে, তবে তা নিয়ে নানা কৌতুহল তৈরী হওয়াটাই স্বাভাবিক। এমন কাণ্ড ঘটিয়ে আবারো আলোচনায় বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান।এমন কাণ্ড যখন বিশ্বজুড়ে ঝড় তুলেছে তখন সাকিব পত্নী বিষয়টি উপভোগ করছেন বলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তুলে ধরেছেন! শুধু তাই নয়, শিশির মনে করেন সাকিবকে সব সময়ের মতো খলনায়ক বানানোর চেষ্টা চলছে। তার মতে, সবাই বুঝতে পারছেন অন্তত একজনের সাহস আছে স্ প্রতিকূলতার বিপক্ষে দাঁড়ানোর।ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের (ডিইউজে) সভাপতি কুদ্দুস আফ্রাদ ফেসবুকে লিখেছেনন, ‘খেলোয়াড় হিসেবে সাকিবকে সমর্থন করি। তবে মানবিক মানুষ বলুন আর সৌম্য শান্ত ভদ্র মানুষ বলুন, এমন কোনও গুন এ পর্যন্ত চোখে পড়েনি।’হুমায়ন কবির হৃদয় নামে এক ফেসবুক ব্যবহারকারী লিখেছেন, ‘ক্রিকেট ভদ্রলোকের খেলা। অভদ্রতা, বেয়াদবি এখানে মেনে নেয়া যায় না। তীব্র নিন্দ্রা জানাই সাকিবের এমন আচরণে।’আতিকা রহমান নিজের টাইমলাইনে পোস্ট দিয়েছেন, ‘আজ ফেসবুক জুড়ে আলোচনার বিষয় থাকবে লাথি দিয়ে স্ট্যাম্প ভেঙ্গে ফেললেন সাকিব আল হাসান।’আশিকুর রহমান রেজভী নামে একজন সাকিবের পক্ষ নিয়েছেন। তার মন্তব্য, ‘বেয়াদবির জন্য যদি দুর্নীতি দূর হয়, তাহলে বেয়াদবিই ভালো। সাকিব ঠিক ছিলে, ঠিক আছে, ঠিক থাকবে।’দিদার হাসান প্রশ্ন রেখেছেন, ‘সাকিব প্রতিবাদী না বেয়াদব?’ ইসমাইল আকন্দ হিমেলের বলেছেন, স্ট্যাম্পে লাথি এ আর এমন কি, আমরা তো ক্রিজ কোপাইয়া দিয়ে আসতাম।’মিলন হোসেন লিখেছেন, লাথি মারো সকল অন্যায়ের বিরুদ্ধে।সাকিব অবশ্য নিজের ফেসবুক পেজে, এমন ঘটনার জন্য আগেই ক্ষমা চেয়েছেন।

স্ট্যাটাসটি তুলে ধরা হলো

প্রিয় ভক্ত ও শুভাকাঙ্ক্ষীরা,

যারাই আজকের ম্যাচে আমার আচরণ দেখে কষ্ট পেয়েছেন বিশেষ করে ঘরে বসে যারা খেলা দেখেছেন, তাদের কাছে আমি দুঃখ প্রকাশ করছি এবং ক্ষমা প্রার্থনা করছি।

আমার মতো অভিজ্ঞ একজন ক্রিকেটারের কাছ থেকে এমনটা মোটেও কাম্য নয়, কিন্তু মাঝে মাঝে প্রতিকুল পরিবেশে এমনটা হতেই পারে।

এমন ভুলের জন্য সকল দল, কর্তৃপক্ষ, টুর্নামেন্ট সংশ্লিষ্ট সকল কর্মকর্তা ও অর্গানাইজিং কমিটির কাছে ক্ষমা চাচ্ছি।

আশা করি ভবিষ্যতে এমন কোন কাজে আমি আর জড়াবোনা।

সবার জন্য ভালোবাসা।



Side banner